শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৫:৪৬ পূর্বাহ্ন

যেভাবে ক্ষমতার পালাবদল হয় ব্রিটিশ রাজপরিবারে

যেভাবে ক্ষমতার পালাবদল হয় ব্রিটিশ রাজপরিবারে

বড় ছেলে চার্লসের সঙ্গে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ

বিবর্তন ডেস্ক: বৃহস্পতিবার মারা গেছেন ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। এদিন দুপুরে স্কটল্যান্ডের বালমোরাল প্রাসাদে ৯৬ বছর বছর বয়সে তার মৃত্যু হয়। তার আগে দীর্ঘ ৭০ বছর ধরে ব্রিটিশ সিংহাসনের রানি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

মায়ের মৃত্যু পর রানির বড় ছেলে চার্লস স্বয়ংক্রিয়ভাবে নতুন রাজা হয়েছেন। বর্তমানে তার বয়স ৭৩ বছর।

বিশ্বজুড়ে সব সময়ই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকে ব্রিটিশ রাজপরিবার। ভারতবর্ষে ব্রিটিশ শাসনের ইতিহাসও সবারই জানা। সেই ইতিহাস বিস্মৃত না হলেও ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের পরিধি এখন অনেক ছোট হয়ে এসেছে। তবে তাদের রাজপরিবার নিয়ে মানুষের আগ্রহের কোনও কমতি নেই।
ব্রিটিশ রাজ্যের ইতিহাস বলতে ভারতীয় উপমহাদেশে ১৮৫৮ খ্রিষ্টাব্দ থেকে ১৯৪৭ খ্রিষ্টাব্দের মধ্যবর্তী ব্রিটিশ শাসনের সময়কালকে বোঝায়। এই শাসনব্যবস্থা চালু করা হয়েছিল ১৮৫৮ খ্রিষ্টাব্দে, যখন ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির শাসন ব্রিটিশ রাজ বা রানি ভিক্টোরিয়ার কাছে হস্তান্তর করা হয়।

যুগে যুগে তাদের ক্ষমতার বদল ঘটেছে। তবে তা পরিবারের মধ্যেই সীমাবদ্ধ। কেননা ব্রিটিশ রাজপরিবারের ক্ষমতা মূলত রাজা থেকে রাজার সন্তানের কাছে পৌঁছায়। কোনও রাজা বা রানি যদি মারা যান, তাহলে তার সন্তানের মধ্যে যিনি সবচেয়ে বড়; তিনি ক্ষমতায় বসবেন।

সে হিসেবে, রাজা ষষ্ঠ জর্জের মৃত্যুর পর তার মেয়ে দ্বিতীয় এলিজাবেথ সিংহাসনে বসেন। এর আগে রাজা ষষ্ঠ জর্জ তার বাবা পঞ্চম জর্জের পর দেশটির রাজা নির্বাচিত হয়েছিলেন। তারও আগে ব্রিটিশ সিংহাসনে ছিলেন রাজা পঞ্চম জর্জের মা রানি ভিক্টোরিয়া।

তখন বাবা-মায়ের ছেলে সন্তান না থাকায় রানি ভিক্টোরিয়া ও দ্বিতীয় এলিজাবেথ সিংহাসনে বসার সুযোগ পেয়েছিলেন। কারণ রাজপরিবারের নিয়ম অনুযায়ী, উত্তরসুরীদের মধ্যে যদি ছেলে-সন্তান থাকে এবং সে যদি বয়সে মেয়েদের চেয়ে ছোটও হয়, তারপরও তিনিই রাজ সিংহাসনে বসবেন।

কিন্তু ২০১৫ সালে প্রিন্স উইলিয়ামের মেয়ে প্রিন্সেস শার্লোটের জন্মের পর এ আইনের পরিবর্তন আনা হয়েছে। ফলে প্রিন্সেস শার্লোট তার ভাই প্রিন্স লুইসের আগে সিংহাসনে বসতে পারবেন, যদি তার তেমন সুযোগ হয়।

বর্তমানে ব্রিটিশ সিংহাসনের উত্তরাধিকারীদের মধ্যে ধারাবাহিকভাবে আছেন রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের বড় ছেলে এবং প্রিন্স উইলিয়ামের বাবা প্রিন্স চার্লস। তার পরেই প্রিন্স উইলিয়াম সিংহাসনে বসতে পারবেন। প্রিন্স উইলিয়ামের পরে সিংহাসনের দাবিদার তার ছেলে প্রিন্স জর্জ, প্রিন্সেস শার্লোট এবং প্রিন্স লুইস। সেই হিসেবে প্রিন্স হ্যারির ব্রিটিশ সিংহাসনে বসার কোনও সম্ভাবনা নেই।

ফলে নিয়ম অনুযায়ী, রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর পর নতুন রাজা হয়েছেন তার বড় ছেলে চার্লস। তিনি ‘প্রিন্স অব ওয়েলস’ হিসেবে এতদিন পরিচিত ছিলেন। শনিবার অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে নিজেকে ‘রাজা’ হিসেবে ঘোষণা দিতে পারেন। লন্ডনের সেন্ট জেমস প্যালেসে তিনি এ ঘোষণা দেবেন বলে গণমাধ্যমের খবরে জানা গেছে।
সূত্র: রয়টার্স, সিবিএস নিউজ, ওয়াশিংটন পোস্ট, আরাবিয়ান বিজনেস

ভাল লাগলে সংবাদটি শেয়ার করুন........

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রণালয়ে আবেদিত... © কর্তৃপক্ষদ্বারা সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত |২০২০|
Design & Developed BY CHT Technology